close
ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় - ICT Barta
সোশ্যাল মিডিয়া

ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায়

আজকে যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করাব ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় ? ফিশিং কি (what is phishing)? ফেসবুক আইডি হ্যাক থেকে বাচাঁর উপায়? 

বর্তমান সময়ের সবথেকে জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম হচ্ছে ফেসবুক। ফেসবুক ব্যবহার করে না এমন লোক খুব কমই খুজে পাওয়া যাবে।

অনেকেই চিন্তুা করে কিভাবে ফেসবুক আইডি হ্যাক করা য়ায। ফেসবুক হ্যাকিং এর চিন্তা না করে কোয়ান্টাম কম্পিউটার তৈরি করার চিন্তা করা ভালো।

এমন কথা শুনে আবার নিরাশ হবেন না। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার সহজ উপায় হচ্ছে ইউজারকে বোকা বানানো। তাহলে আসুন জেনে নেই কিভাবে ইউজারকে বোকা বানানো যায়।

আজকে যে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করাব ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় ? ফিশিং কি (what is phishing)? ফেসবুক আইডি হ্যাক থেকে বাচাঁর উপায়? 

কিভাবে ফেসবুক আইডি হ্যাক করব (How to hack a Facebook Account)

অনেকেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার উপায় জানতে চেয়ে ইউটিউবে সার্চ করেন। ফলে অনেক রকম ভিডিও আসে। প্রায় ভিডিওতেই দেখা যায় কোনো নির্দিষ্ট বা অনেকগুলো ওয়েবসাইটের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়।

যার আইডি হ্যাক করবেন তার প্রোফাইলের লিংক কপি করে ওই ওয়েবসাইটে পেস্ট করলে কাঙ্খিত পাসওয়ার্ড পেয়ে যাবেন।

আসল কথা হলো, এভাবে কখনো হ্যাক করা সম্ভব না। কিছু কিছু ইউটিউবার আছে যারা তাদের ভিউ বাড়ানোর জন্য এ ধরনের ভুল তথ্য দিয়ে থাকে।

তাহলে আজকে আমাদের আর্টিকেলটি পুরোপুরি পড়ুন এবং এখান থেকে জেনে নিন ফেসবুক আইডি হ্যাকের কিছু সঠিক উপায়।

ফেসবুক এডস এক্যাউন্ট ডিজেবল হওয়ার কারন এবং সমাধান

প্রথম উপায়,  ইউজারকে বোকা বানিয়ে হ্যাকিং করার সহজ উপায় হচ্ছে ফিশিং(phishing) অ্যাটাক। এখন আবার অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে ফিশিং (phishing) কি? তাহলে আসুন জানি…..

ফিশিং কি (what is phishing)?

ফিশিং বলতে বুঝায়, অনলাইনে প্রতারণার মাধ্যমে কোনো ইউজার বা ব্যবহারকারীর ইউজার নেম, পাসওয়ার্ড অথবা ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চুরি করা।

যদি একটি উদাহরণ দিয়ে বলি তাহলে আরো ভালোভাবে বুঝতে পারবেন। ধরেন ফেসবুকের ইউআরএল (URL) হচ্ছে www.facebook.com । এখন আপনি এমন একটি ডোমেইন নেন দেখতে যেন প্রায়ই ফেসবুকের মতো হয়।

মনে করি, আপনি www.facebook5 .com নিলেন। ফেসবুক এর মতো একই লগইন পেইজ ডিজাইন করুন। আপনি যাকে টার্গেট করছেন তাকে বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক, ই-মেইল বা অন্যান্য মাধ্যমে ওই লিংক সেন্ড করুন। সে লিংকে ক্লিক করে দেখতে পাবে তাকে ফেসবুকের লগিন পেইজে নিয়ে গেছে। সে তারপর ফোন নাম্বার বা ই-মেইল, পাসওয়ার্ড ‍দিয়ে লগিন করবে। যার ফলে আপনার টার্গেট ব্যাক্তির ই-মেইল পাসওয়ার্ড আপনার ডাটাবেজে চলে আসবে এবং আপনি তার অ্যাকাউন্টের অ্যাকসেস নিতে পারবেন।

এছাড়াও ফিশিং লিংক তৈরি করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট আছে। যেমন: wapka সাইটে গিয়ে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেসবুকের মতো ইউআরএল নিয়ে ফিশিং লিংক তৈরি করতে পারেন।

আপনি এভাবে ফিশিং লিংক  তৈরি করে বন্ধু-বান্ধবকে বোকা বানাতে পারেন। আপনাকে ফিশিং অ্যাটাকে সফল হতে হলে অনেক চতুরতা অবলম্বন করতে হবে।

দ্বিতীয় উপায়, বেশ কিছু স্ক্রিপ্ট আছে তা ভিকটিমের কনসোলো রান করাতে পারলে অ্যাকাউন্টের অ্যাকসেস পাওয়া সম্ভব। বিভিন্ন পলিসি অনুযায়ী বেআইনি বা ক্ষতিকর কিছু শেয়ার করতে পারব না।

তৃতীয় উপায়, আপনি যাকে টার্গেট করেছেন তার ফোন নাম্বারের অ্যাকসেস নিতে হবে। যার জন্য অতিরিক্ত কিছু হার্ডওয়্যারের প্রয়োজন হবে এবং আপনাকে ভিকটিমের আশেপাশে থাকতে হবে। আবারও পলিসি অনুযায়ী বেশি কিছু শেয়ার করতে পারলাম না।

গুগলে সঠিকভাবে তথ্য খোঁজার ১০টি কৌশল

উপরে ফেসবুক আইডি হ্যাক করার বেশ কিছু উপায় আলোচনা করেছি। এর মধ্যে আমার মতে সবথেকে সহজে সফলজনক উপায় হচ্ছে ফিশিং অ্যাটাক।

বাগ-বাউন্টিং প্রোগ্রামের কারণে ফেসবুকের প্রবেলেম নেই বললেই চলে। তাই বলা যায় ফেসবুকের সিস্টেমের দুর্বলতার খুজে হ্যাক করা সম্ভব না। তখন আপনার হাতে একটাই উপায় তাকে ইউজারকে বোকা বানানো।

আশা করি এখন মোটামোটি ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় বা ফেসবুক হ্যাকিং সিস্টেম বুঝতে পারছেন। এছাড়াও যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন। এখন আলোচনা করব ফেসবুক আইডি হ্যাকিং থেকে বাচাঁর উপায় গুলো নিয়ে।

ফেসবুক আইডি হ্যাক থেকে বাচাঁর উপায়

অনেকেই যখন বন্ধু-বান্ধব বা অন্য কোনো ব্যাক্তির ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় গুলো খুজছেন। ঠিক তখনই অপরপক্ষ হ্যাক থেকে বাচাঁর উপায় খুজছে।

ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়ে গেলে করণীয় তেমন আর কিছু থাকে না। কারন হ্যাকাররা সকল উপায় বন্ধ করে দেয়। তবে হ্যাক হলে থানায় একটা সাধারন ডায়েরি করতে ভুলবেন না। অথবা অন্য কোনো বন্ধু-বান্ধবের মাধ্যমে জানিয়ে দিবেন যে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে।

তাহলে চলুন এবর জেনে নেই কিভাবে ফেসবুক আইডি নিরাপদ রাখা যায়

  • পাসওয়ার্ড : ফেসবুকে কখন সহজ পাসওয়ার্ড দিবেন না। অন্য যে কেউ অনুমান করতে পারে কিংবা আপনার ফোন নাম্বার, জন্ম তারিখ, রোল নাম্বার এগুলো কখনো পাসওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করবেন না। ফেসবুকের পাসওয়ার্ড অন্য কোথায়ও দিবেন না। কারো সাথে কখনো শেয়ার করবেন না। জটিল পাসওয়ার্ড দেয়ার জন্য (@ ! # $ % * &) এই সিম্বল গুলো ব্যবহার করুন। ছোট-বড় অক্ষর মিলিয়ে কমপক্ষে আট ডিজিটের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
  • কখনোই ফেসবুকের লগিন তথ্য অন্য কোনো সাইটে দিবেন না। লগিন করার সময় অবশ্যই ফেসবুকের  ইউআরএল (URL) চেক করে নিবেন। একটু আগে ফিশিং অ্যাটাক নিয়ে আলোচনা করেছিলাম, না হয় আপনিও বোকা হয়ে যাবেন। লগিন বা অ্যাকাউন্ট তৈরি করার সময় www.facebook.com ইউআরএল টাইপ করে কাজ করুন।
  • বেশি বেশি লাইক-কমেন্ট পাওয়ার আশায় গনহারে ফ্রেন্ড লিস্টে যুক্ত করবেন না। কেননা আপনার ফ্রেন্ড হয়ে টাইমলাইনে স্প্যাম ছড়াতে পারে, বিব্রতকর পোস্টে ট্যাগ করতে পারে, বিভিন্ন ফিশিং সাইটের মেসেজ পাঠাতে পারে। তাই অপরিচিত কাউকে ফ্রেন্ড বানাবেন না।
  • Two-factor Authentication অপশন চালু করুন : কেউ যদি আপনার ফেসবুকের পাসওয়ার্ড পেয়েও যায় তাহলেও লগিন করতে পারবে না। কারন যখন পাসওয়ার্ড দিয়ে লগিন করবে তখন নিয়ে যাবে নাম্বার ভেরিফাই করার জন্য। তখন ওই ফোন নাম্বার হচ্ছে আপনার কাছে ফলে সে লগিন করতে পারবে না। Two-factor Authentication চালু করলে আপনার ফেসবুক হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশই কমে যাবে।

Two-factor Authentication চালু করবেন যেভাবে :

Facebook থেকে Setting> Security and login > Two-Factor Authentication > Use Text Message (SMS) Verification Service.

  • যখন একই মোবাইল বা কম্পিউটার একাধিক ব্যাক্তি ব্যবহার করে এমন ডিভাইসের ক্ষেত্রে ব্যবহার শেষে লগআউট করে ফেলুন।

আশা করি এখন আপনার ফেসবুক আইডির নিরাপত্তা বজায় রাখতে পারবেন।

আারো জানুন: ফেসবুকের পুরনো র্ভাশন ফেরত পাবেন যেভাবে

আজকে যে বিষয়গুলো সর্ম্পকে জানতে পারলেন ফেসবুক আইডি হ্যাক করার উপায় ? ফিশিং কি (what is phishing)? ফেসবুক আইডি হ্যাক থেকে বাচাঁর উপায়? এছাড়াও যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে আমাদের জানাতে পারেন কমেন্টের মাধ্যমে। আমরা সঠিক সময়ে সঠিক উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব।

Saidul Islam

আমি মো: সাইদুল ইসলাম। বেশ কিছুদিন ধরে প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করছি। এছাড়াও এসইও নিয়ে কাজ করতেছি। আমিও এখনো একজন লার্নার, তাই বলবো ‍নিয়মিত ব্লগ পড়ুন, জানতে থাকুন ও নতুন কিছু শিখতে থাকুন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button