অন্যান্য

১৮ অক্টোবর থেকে সারা দেশে থাকবে না ইন্টারনেট

বিকল্প ব্যবস্থা না করে রাজধানীতে ঝুলন্ত তার অপসারণ অব্যাহত রাখলে ১৮ অক্টোবর থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সারাদেশে ইন্টারনেট ও কেবল টিভি সেবা বন্ধের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন এসব সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা। ১৭ অক্টোবরের মধ্যে চলমান সমস্যা সমাধানের সময়সীমাও বেধে দিয়েছেন সংগঠন দু’টির নেতারা।

সোমবার (১২ অক্টোবর) বেলা ১২টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন বিনা নোটিশে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক অপসারণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বাংলাদেশের বাসাবাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ডাটা কানেক্টিভিটি এবং ক্যাবল টিভি বন্ধ রাখার প্রতীকী কর্মসূচি গ্রহণ করেছে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ও ক্যাবল অপারেটর্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)।

নগরীর সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও ফুটপাতে পথচারীদের চলাচলে ঝুঁকি এড়াতে ১লা অক্টোবর থেকে ঝুলন্ত তার অপসারণ শুরু করেছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এতে করোনাকালে নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট ও টেলিভিশন সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কয়েক লাখ গ্রাহক। সেবাদাতারা বলছে, চলমান অভিযানে শুধু দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে এলাকাতেই তার বাবদ ২০ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা অভিযোগ করেন বিকল্প ব্যবস্থা না করেই সিটি করপোরেশন একতরফাভাবে তার অপসারণ করছে। স্থায়ী কেবল ব্যবস্থার বিষয়ে কোন পদক্ষেপ না নিয়ে আইএসপি প্রতিষ্ঠানের জন্য উল্টো ২৫ লাখ টাকা বাৎসরিক নিবন্ধন ফি নির্ধারণ করেছে; যা অযৌক্তিক। সমস্যার যৌক্তিক সমাধানে সিটি করপোরেশনকে একটি তদন্ত কমিটি গঠনেরও পরামর্শ দেন তারা।

আইএসপিএবির সভাপতি এমএ হাকিম বলেন, ১৭ অক্টোবরের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান না হলে ১৮ অক্টোবর থেকে প্রতিদিন ৩ ঘণ্টা করে সারা দেশে ইন্টারনেট ডেটা কানেক্টিভিটি ও কেবল টিভির সেবা প্রতীকীভাবে বন্ধ রাখা হবে। সমস্যার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

স্থায়ী সমাধান না করা পর্যন্ত কোনো ঝুলন্ত তার অপসারণ না করা; আইএসপিএবি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন ও সিটি করপোরেশনের সমন্বয়ে লাস্ট মেইল কেবল স্থাপন করা হয়েছে কিনা, তা নিশ্চিত করতে একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিন তদন্তের ব্যবস্থা করাসহ পাঁচ দফা দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button