close
Bitcoin কী? কীভাবে Bitcoin থেকে ইনকাম? A-Z - ICT Barta
প্রযুক্তি বাজার

Bitcoin কী? কীভাবে Bitcoin থেকে ইনকাম? A-Z

আজকে আমরা যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করব সেটা হচ্ছে Bitcoin. Bitcoin কী? কীভাবে Bitcoin থেকে ইনকাম করা সম্ভব? কীভাবে কাজ করে? আশা করি এছাড়াও আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

 শুরুতেই আলোচনা করব Bitcoin কী?

Bitcoin হচ্ছে বিশ্বের সর্বপ্রথম ইলেকট্রনিক মুদ্রা বা ক্রিপ্টকারেন্সি আবার ডিজিটাল মুদ্রা হিসেবেও পরিচিতি। এখানে লেনদেন এর জন্য কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন হয় না। প্রেরক প্রাপক সরাসরি কম্পিউটারের মাধ্যমে অনলাইনে লেনদেন করতে পারে। এক্ষেত্রে লেনদেন এর সময় সবার পরিচয় গোপন থাকে।

Bitcoin এর উপর কোনো দেশের সরকারের নিয়ন্ত্রন থাকে না। সাধারনত আমরা লেনদেন করলে সরকারকে ভ্যাট দিতে হয়। তারমানে আমাদের লেনদেন সরকার কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত। যেহেতু বিটকয়েন লেনদের এর উপর কারো নিয়ন্ত্রন নেই। তাই ডার্কওয়েব সেলার এবং হ্যাকারদের কাছে খুবই জনপ্রিয় একটি মুদ্রা।

Bitcoin এর উৎপত্তি

প্রথম ২০০৮ সালে bitcoin.org নামে ডোমেইন নিবন্ধন করা হয়। একই বছর নভেম্বর মাসে সাতোশি নাকামোতো নামধারী এক ব্যাক্তি গবেষনার ফলাফল রচনাকারে বিটকয়েন কি এবং কীভাবে কাজ করে তা প্রকাশ করেন। তার গবেষনায় কীভাবে কোনো ব্যাংক বা কারো মধ্যস্ত ছাড়াই পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে লেনদেন করা যায় সে পদ্ধতি ব্যাখ্যা করেন।

তার ঐ গবেষনার হাত ধরেই ২০১০ সালে বিটকয়েন বাজারে আসে। সর্বপ্রথম সাতোশি নাকামোতো এবং ফিনি নামক দুই জন ব্যাক্তির সাথে বিটকয়েন লেনদের এর ঘটনা ঘটে। অতঃপর সাতোশি নাকামোতো বিটকয়েন মাইনিং এর জন্য প্রথম সফটওয়্যার তৈরি করেন। সাতোশি নাকামোতো ছদ্মনাম অনুসারে Bitcoin এককের নাম নির্ধারণ করা হয় সাতোশি।

আরও পড়ুন:  এসএসডি (SSD) বনাম এইচডিডি (HDD) আপনি কোনটি কিনবেন?

কীভাবে Bitcoin থেকে ইনকাম


Bitcoin হচ্ছে একটি ইলেট্রনিক বা র্ভাচুয়াল মুদ্রা। যার মূল্য সংরক্ষন করার জন্য কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন হয় না। এটি নিজের মূল্য নিজেই সংরক্ষন করতে পারে।

প্রথমে জেনে নেই Bitcoin এর বর্তমান 1 bitcoin to usdবাজার মূল্য1 bitcoin to bdt

 

 

 

 

উপরের ছবিতে দেখা যাচ্ছে,

1 Bitcoin = 1,103,615.90 Bangladeshi Taka

1 Bitcoin = 13,009.90 United States Dollar

Bitcoin থেকে ইনকাম করার তিনটি উপায় রয়েছে

প্রথমত, আপনি ইনভেস্ট করে আয় করতে পারেন। বিটকয়েন এর স্থায়ী কোনো মূল্য নেই। এটি স্বর্ণের মতো আচারন করে। যেকোনো সময় এর মূল্য হ্রাস-বৃদ্ধি পায়। আপনি যদি বিটকয়েন ক্রয় করে সঞ্চয় করে রাখেন যখন এর মূল্য বৃদ্ধি পাবে তখন বিক্রি করে দিয়ে বিপুল পরিমান টাকা ইনকাম করতে পারেন। বেশিরভাগ সময় এর মূল্য বৃদ্ধি পায়। মূল্য হ্রাস পাওয়ার ঘটনা ঘটে না বললেই চলে।

দ্বিতীয়ত, ডিজিটাল যুগে আমরা অনেকেই অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের পণ্য বিক্রি করে থাকি। আপনার কোনো পণ্য বিক্রি করার পর তার বিনিময় মূল্য হিসেবে বিটকয়েন আনতে পারেন। বিটকয়েনগুলো আপনার বিটকয়েন ওয়ালেট একাউন্টে জমা করে রাখতে পারেন। যখন এর মূল্য বৃদ্ধি পারে তখন বিক্রি করে দিয়ে ও আয় করা সম্ভব।

তৃতীয়ত, বিটকয়েন আয় করার সবথেকে জনপ্রিয় উপায় হলো মাইনিং করে। যার জন্য আপনাকে প্রচুর জ্ঞান থাকতে হবে এবং অনেক ক্ষমতাধর কম্পিউটারও থাকতে হবে।

মাইনিং যারা করে তাদেরকে miners বলা হয়। বিটকয়েন দিয়ে লেনদেন করার সময় transactions গুলোকে verify করতে হয়। এই verify এর কাজ করে  কিছু bitcoin আয় করা সম্ভব।

আপনারা চাইলে wikipedia ওয়েবসাইটের  history of bitcoin পাতাতে সম্পূর্ণ  জানতে পারবেন

 

 

 

Saidul Islam

আমি মো: সাইদুল ইসলাম। বেশ কিছুদিন ধরে প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করছি। এছাড়াও এসইও নিয়ে কাজ করতেছি। আমিও এখনো একজন লার্নার, তাই বলবো ‍নিয়মিত ব্লগ পড়ুন, জানতে থাকুন ও নতুন কিছু শিখতে থাকুন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button