close
নতুন রুপে মেসেঞ্জার - ICT Barta
সোশ্যাল মিডিয়া

নতুন রুপে মেসেঞ্জার

নতুন রুপে চেহারা দিচ্ছে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারকে।  অ্যাপটির নতুন ডিজাইন করা সংস্করণটি প্রকাশ করেছে, এতে আরও প্রাণবন্ত লোগো এবং নতুন ডিফল্ট চ্যাট রঙ, অতিরিক্ত চ্যাট থিম এবং কাস্টম প্রতিক্রিয়া রয়েছে।

করোনা মহামারীর কারনে বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ গৃহবন্দি। বন্ধু-বান্ধব, সহকর্মী, আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র উপায় সেই সোশ্যাল মিডিয়া। এবার ব্যবহারকারীদের আরও নতুন অভিজ্ঞতা দিতে বেশ কিছু ফিচার যুক্ত হল ফেসবুক মেসেঞ্জারে। সঙ্গে পাল্টে গেল লোগোও।

নতুন রুপে মেসেঞ্জার একটি নতুন লোগো পাচ্ছে যা ইনস্টাগ্রামের গ্রেডিয়েন্ট আইকন ডিজাইনের অনুরূপ। এই নতুন লোগোটি ইনস্টাগ্রামের  সাথে মেসেঞ্জারের  সংযোগকে প্রতিফলিত করে

সম্প্রতি ফেসবুকের তরফ থেকে মেসেঞ্জারের যে নতুন লোগোটি প্রকাশিত হয়েছে, সেটি আর আগের মতো কেবল নীল রঙয়ের নয়, তাতে কিছুটা গোলাপি রঙও রয়েছে। শুধু নতুন লোগো নয়, আসতে চলেছে আরও নতুন থিম এবং ফিচারও।

নতুন রুপে মেসেঞ্জার প্রসঙ্গে বিবৃতিও দিয়েছেন ফেসবুকের ভাইস প্রেসিডেন্ট স্টান চাদনোভস্কি। আসলে ফেসবুক মেসেঞ্জার আর ইনস্টাগ্রামের চ্যাট পদ্ধতিকে এক সঙ্গে জুড়ে দেওয়ার জন্যই মেসেঞ্জারের এই নতুন লোগো।

আরও পড়ুন:

সরাসরি মেসেঞ্জার থেকে ইনস্টাগ্রামে চ্যাট করার সুযোগ

 

বেশ কিছু ফোনে মেসেঞ্জারে এই নতুন কিছু ফিচারও বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এছাড়া যুক্ত হবে লাভ অ্যান্ড টাই-ডাই নামে বিশেষ এক ভালবাসার থিমও। সঙ্গে থাকছে সেলফি স্টিকার। যুক্ত করা হয়েছে ভ্যানিশ মোডও। স্ন্যাপচ্যাট এবং ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীরা যে সুবিধা পেয়ে থাকে, সেটা এবার ফেসবুক মেসেঞ্জারেও পাবেন ব্যবহারকারীরা।

অর্থাৎ, ম্যাসেঞ্জারের এই নতুন মোড অন করা থাকলে, ব্যবহারকারীর পাঠানো কোনও ছবি তিনি চ্যাট থেকে বেরিয়ে গেলে কিংবা উল্টোদিকে থাকা ব্যক্তির দেখা হয়ে গেলে মুছে যাবে।

ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের নতুন বৈশিষ্ট্যটি বর্তমানে উত্তর আমেরিকার বেশিরভাগ ব্যবহারকারীরা উপভোগ করছেন।

আবার এদিকে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে ইনস্টাগ্রাম দশ বছর পূর্ণ করেছে। আর সেজন্য নিজের ব্যবহারকারীদের জন্য চারটি নতুন ফিচারও এনেছে সংস্থাটি। এছাড়া খুব অল্প সময়েই সুপারহিট হয়ে গিয়েছে ‘‌‌Reels’‌ও। জনপ্রিয় চিনা অ্যাপ টিকটক (TikTok) বিভিন্ন কারনে দেশ থেকে বিদায় নেওয়ায় সে শূন্যস্থানটিও পূরণ করেছে ইনস্টাগ্রামের রিলস (Reels)। যেখানে ব্যবহারকারীর ইচ্ছা মতো ভিডিও তৈরি করে আপলোড করা যায়। এছাড়াও রয়েছে টিকটকের মতোই একাধিক বৈশিষ্ট্য, তাই তার জনপ্রিয়তাও কিন্তু আরও বেড়ে গিয়েছে।

আরো জানতে

Saidul Islam

আমি মো: সাইদুল ইসলাম। বেশ কিছুদিন ধরে প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করছি। এছাড়াও এসইও নিয়ে কাজ করতেছি। আমিও এখনো একজন লার্নার, তাই বলবো ‍নিয়মিত ব্লগ পড়ুন, জানতে থাকুন ও নতুন কিছু শিখতে থাকুন।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button